হোম / খেলাধুলা / ভারতকে রুখে দিয়ে গ্রুপসেরা বাংলাদেশ
full_834625479_1483095108

ভারতকে রুখে দিয়ে গ্রুপসেরা বাংলাদেশ

শক্তিশালী ভারতকে রুখে দিয়েছে বাংলাদেশ। গোলশূন্য ড্রয়ে গ্রুপের চ্যাম্পিয়ন হয়ে মেয়েদের সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের সেমি-ফাইনালে উঠেছে সাবিনারা।

আফগানিস্তানকে ৬-০ গোলে উড়িয়ে দিয়ে সেমি-ফাইনাল নিশ্চিত করা বাংলাদেশ শনিবার ভারতের বিপক্ষে ‘বি’ গ্রুপের সেরা হওয়ার লড়াইয়ে নামে। রক্ষণাত্মক ফুটবল খেলা বাংলাদেশ গোলরক্ষক সাবিনা আক্তারের দারুণ দৃঢ়তায় ড্রয়ের আনন্দ নিয়ে মাঠ ছাড়ে।

আগের ছয়বার ভারতের মুখোমুখি হয়ে প্রতিবারই হেরেছিল বাংলাদেশ। সেমি ফাইনালে আগামী সোমবার বাংলাদেশের প্রতিপক্ষ মালদ্বীপ।

শিলিগুড়ির কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামে শনিবার রক্ষণাত্মক কৌশল নিয়ে খেললেও স্বাগতিক ভারতের সঙ্গে শুরু থেকে সমানে লড়াই করে বাংলাদেশ। দশম মিনিটে ভারতের একটি আক্রমণ রুখে দিয়ে বাংলাদেশের ত্রাতা সাবিনা আক্তার। সতীর্থের বাড়ানো বল ডি-বক্সের মধ্যে দাঙ্গমেই গ্রাসি নিয়ন্ত্রণে নেওয়ার আগেই দ্রুত দৌড়ে এসে তা বিপদমুক্ত করেন গোলরক্ষক।

লং পাসে খেলা বাংলাদেশ প্রতিআক্রমণ থেকে পঞ্চদশ মিনিটে এগিয়ে যাওয়ার ভালো একটি সুযোগ হারায়। ডান দিক থেকে সাবিনা খাতুনের ফ্রি-কিক ডি-বক্সের মধ্যে পেয়ে যান সিরাত জাহান স্বপ্না। এই ফরোয়ার্ডের ছোট পাসে কৃষ্ণা রানী সরকারের প্লেসিং প্রতিপক্ষের ডিফেন্ডারের পা হয়ে পোষ্ট ঘেঁষে বেরিয়ে যায়।

আফগানিস্তানের জালে পাঁচ গোল করা সাবিনা ২৩তম মিনিটে বাঁ দিক থেকে বল নিয়ে ঢুকে পড়লেও তালগোল পাকিয়ে শট নিতে পারেননি। একটু পর গ্রাসিকে ডি-বক্সের একটু ওপরে মাইনু মারমা ফাউল করলে ফ্রি কিক পায় ভারত। সাসমিতা মালিকের জোরালো শট দারুণ দক্ষতায় ফেরান গোলরক্ষক।

বালা-সাসমিতা-গ্রাসিতে সাজানো ভারতের অভিজ্ঞ আক্রমণভাগকে শিউলি-শামসুন্নাহার-মাসুরা-নার্গিসসে গড়া রক্ষণভাগ ভালোভালো সামাল দেয়। প্রথমার্ধে পোস্টের সামনে দুর্বার ছিলেন গোলরক্ষক। ৩৪তম মিনিটে আবারও বাংলাদেশের ত্রাতা এই গোলরক্ষক। বাঁ দিক থেকে সাসমিতার ক্রসে বালা দেবির হেড শেষ মুহূর্তে ফেরান তিনি।

চার মিনিট পর আবারও গোলরক্ষকের দৃঢ়তা আর ভাগ্যের জোরে ম্যাচে থাকে বাংলাদেশ। ডি-বক্সের বেশ বাইরে থেকে সাসমিতার দারুণ শট বাঁক খেয়ে পোস্টে ঢোকার আগ মুহূর্তে সাবিনার ফিস্ট করেন; এরপর বল ক্রসবারে লেগে বেরিয়ে যায়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *