হোম / লাইফস্টাইল / হলুদ-আদা চায়ের স্বাস্থ্য উপকারিতা
full_1333409167_1482929990

হলুদ-আদা চায়ের স্বাস্থ্য উপকারিতা

প্রায় সব মানুষই চা খেতে পছন্দ করেন। চা পানে ক্লান্তি দূর হওয়ার পাশাপাশি ঠাণ্ডাজনিত অনেক রোগ থেকেও মুক্তি মেলে। আর হলুদ ও আদার স্বাস্থ্যগুণের কথা সবার জানা। এই তিন উপকারী খাবার একসঙ্গে খাওয়া গেলে তো আর কথাই নেই। সম্প্রতি গবেষণায় বলা হয়, হলুদ-আদার (হলুদ ও আদা একসঙ্গে) চা খেলে দীর্ঘজীবী হওয়া যায়। তবে হয়তো হলুদের গাঢ় রং দেখে খেতে ইচ্ছে নাও করতে পারে। তবে এটি রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে কাজ করে। এর মধ্যে হালকা লবঙ্গ ও মরিচ দিয়ে নিতে পারেন।

জীবনধারা বিষয়ক ওয়েবসাইট বোল্ডস্কাইয়ের স্বাস্থ্য বিভাগে জানানো হয়েছে হলুদ-আদা চায়ের উপকারিতার কথা-

– হলুদ-আদা চা পাকস্থলী ভালো রাখে। বমি, গ্যাস এসব সমস্যা কমায়।

– হলুদ-আদা চা মেদ ঝরাতে সাহায্য করে। হলুদ ও আদা; উভয় উপাদানই শক্তি বাড়ায়। শক্তি বাড়া মানে আপনি কায়িক শ্রম বেশি করবেন। আর কায়িক শ্রম করলে ওজন কমবে।

– এই চা ঠান্ডা কমাতে সাহায্য করে এবং শ্বাসতন্ত্রের সমস্যা কমায়। এই চায়ের মধ্যে এক চা চামচ মধু মেশাতে পারেন।

– যাদের পরিবারে ক্যানসার হওয়ার ইতিহাস রয়েছে তারা ক্যানসার প্রতিরোধে হলুদ-আদা চা খেতে পারেন। – যদি দীর্ঘমেয়াদি ব্যথার সমস্যা থাকে, তাহলে প্রতিদিনের খাদ্য তালিকায় হলুদ-আদার চা রাখুন। হলুদের কারকিউমিন প্রদাহ রোধ করে।

– এই চা খেলে মস্তিস্কে অক্সিজেন পরিবহন বাড়ে। এটি মস্তিষ্কের কার্যক্রমে সাহায্য করে। এটি স্মৃতিশক্তি বাড়ায়।

কীভাবে বানাবেন হলুদ-আদার চা

এক/দুই কাপ পানি

এক/দুই চা চামচ হলুদ গুঁড়ো

এক/দুই চামচ আদা গুঁড়ো

সামান্য দারুচিনি গুঁড়ো

স্বাদ বাড়াতে মধু

প্রস্তুত প্রণালি
সব উপাদান একত্রে মিশিয়ে অল্প আঁচে ১০ মিনিট ফোটান। সব উপাদান ভালোভাবে মিশে যেতে দিন। ফোটার পর দুধ দিতে পারেন। চাইলে দুধ না দিয়েই খেতে পারেন। চুলা থেকে নামিয়ে মধু মিশিয়ে খান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *